‘আমার ধর্ম ইসলাম, অন্য ধর্মকে সম্মান করতে শেখায়’, নিজ মন্ত্যব্যের ক্ষমা চেয়ে টুইট ফিরহাদের



বি.বি নিউজ ওয়েবডেস্ক: ‘আমার ধর্ম ইসলাম শান্তির ধর্ম, অন্য ধর্মকে সম্মান করতে শেখায়’। সোমবার সন্ধ্যায় এমনই এক টুইট করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim)। এমনকি তাঁর এক মন্তব্যের অপব্যাখ্যা হয়েছে বলে দাবি করে ক্ষমা-ও চাইলেন ফিরহাদ। কিন্তু হঠাৎ কেন এমন টুইটবার্তা?

দিন কয়েক আগে চেতলায় এক ধর্মীয় অনুষ্ঠানে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim) বলেছিলেন, “বৌদ্ধধর্মের যে প্রোগ্রাম, আজ বিশ্বে যখন হিংসা ও হানাহানি চলছে, হিন্দুত্ববাদেও হিংসা, ইসলামবাদেও হিংসা, তখন বুদ্ধদেবই একমাত্র রাস্তা, যা পৃথিবীকে বাঁচাতে পারে। মানব জাতিকে বাঁচাতে পারে”।

তিনি আরও বলেছিলেন, “আজকের বিশ্বে সবাই হিংসা হানাহানি করছে। হিন্দুত্ববাদের হিংসা চলছে আর একদিকে ইসলামাবাদের হিংসা চলছে। বৌদ্ধধর্ম একমাত্র রাস্তা যার দ্বারা পৃথিবীতে শান্তি আসবে। তাই, আমাদেরও অহিংসার রাস্তায় চলতে হবে”।

এদিকে ফিরহাদের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে সাম্প্রতিক অতীতে মায়ানমারে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের হিংসাশ্রয়ী অবস্থান নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলেছিলেন। তাঁদের দাবি, কোনও ধর্মই হিংসার কথা বলে না। সমস্যা আসলে কট্টরপন্থীদের নিয়ে। তাঁরা তুলে আনেন ‘দ্য ফেস অফ বুদ্ধিস্ট টেরর’ নামে পরিচিত মুসলিম বিরোধী বৌদ্ধ ভিক্ষু আশিন উইরাথুর উদাহরণ। কট্টর জাতীয়তাবাদী এবং রোহিঙ্গা মুসলিম বিরোধী বক্তব্যের জন্য নজরে আসেন এই বৌদ্ধ সন্ন্যাসী। ‘বৌদ্ধ বিন লাদেন’ বলে কুখ্যাত এই বৌদ্ধ ভিক্ষুকে ২০১২ সালে মায়ানমারের বৌদ্ধ ও মুসলিমদের মধ্যে ভয়াবহ দাঙ্গার জন্য দায়ী করা হয়। এমনকি বৌদ্ধ ভিক্ষু উইরাথুরকে ২০১৩ সালে টাইম ম্যাগাজিনের প্রচ্ছদে ‘দ্য ফেস অফ বুদ্ধিস্ট টেরর’ বলে অভিহিত করা হয়। অতি সম্প্রতি তাঁকে অবশ্য মুক্তি দিয়েছে মায়ানমারের সামরিক জুন্টা।

এই পরিপ্রেক্ষিতেই হয়ত টুইট করে নিজের অবস্থান জানালেন ফিরহাদ। মন্ত্রীর দাবি, তাঁর মন্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে। তিনি কোনও ধর্মকে ছোট করতে চাননি। অজান্তে কারও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত লাগলে তিনি ক্ষমাপ্রার্থী বলে জানান।

এদিন এক টুইটে ফিরহাদ লিখেছেন, “আমি সমস্ত ধর্মকে সম্মান করি, এবং যদি আমার কথা কারও অনুভূতিতে আঘাত করে থাকে, তবে আমি ক্ষমা চাইছি”। তিনি আরও লেখেন, “আমার অনুভূতির (মন্তব্য) ভুল ব্যাখ্যা হয়েছে। আমার ধর্ম ইসলাম শান্তির ধর্ম এবং আমাকে মানবতা এবং অন্য সব ধর্মকে সম্মান করতে শেখায়। আমি সমস্ত ধর্মকে সম্মান করি, এবং যদি আমার কথা কারও অনুভূতিতে আঘাত করে থাকে, তবে আমি ক্ষমা চাইছি”।

error: