বৃদ্ধ দম্পতির ভিটেমাটি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে



বি.বি নিউজ ৩৬৫ ডেস্ক:অন্যত্র জমি দেওয়ার নাম করে এক অসহায় বৃদ্ধ দম্পতির বসত ভিটে কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল এক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। ভিটে মাটি হারিয়ে বৃদ্ধ দম্পতির এখন রাত কাটছে খোলা আকাশের নীচে।

ঘটনাটি ঘটেছে মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুরের তেঁতুল বাড়ি গ্রামে। এই ঘটনায় বৃদ্ধ দম্পতি হরিশ্চন্দ্রপুর থানায় লিখিত অভিযোগও জানালেও কোন সুরাহা হয়নি বলে অভিযোগ। তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ ওঠায় ক্ষুব্ধ জেলা নেতৃত্ব। এখন বৃদ্ধ দম্পতির একটাই দাবী ফিরে পাওয়া নিজেদের বসতভিটে।

বয়স প্রায় ৯০ ছুই ছুই মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুরের তেঁতুল বাড়ি গ্রামের বাসিন্দা শেখ ভুসরার। শারীরিকভাবে সে আবার প্রতিবন্ধী। বয়সের ভারে হারিয়েছেন চলাফেরার ক্ষমতা। তাঁর সাথেই থাকেন বৃদ্ধা স্ত্রী বেগম বেওয়া। তাঁদের দুই সন্তান পরিযায়ী শ্রমিক। সে কারণে তারা বহু বছর ধরে ভিনরাজ্যেই থাকে। রাস্তার পাশে দুকাঠা জমির ওপর ছোট একটা ঘরেই দিন কাটত এই অসহায় দম্পতির। আর সেই দু’কাঠা জমির ওপরে নজর পড়ল জমি মাফিয়াদের।

অভিযোগ স্থানীয় এক তৃণমূল নেতা নাসিরুদ্দিন নামে এক জমির কারবারী অন্যত্র ভাল জমি দেওয়ার নাম করে বৃদ্ধবৃদ্ধার বসতভিটেটা বিক্রি করতে বাধ্য করে। কথা ছিল অন্যত্র অনেক কম দামের একটি জায়গা দেওয়ার। যার জন্যে ১০ হাজার টাকা আগাম নেওয়াও হয় বৃদ্ধদম্পতির কাছ থেকে। কিন্তু সেই জমিও দেওয়া হয়নি। ফলে জমি হারিয়ে বৃদ্ধদম্পতির আশ্রয় নিয়েছে এলাকার একটি খোলা মাঠে। সেখানেই খোলা আকাশের নীচে কাটছে তাদের রাত।

ভিটেমাটি ফেরত পেতে তারা তৃণমূল নেতা নাসিরুদ্দিনের নামে অভিযোগ দায়ের করেন হরিশ্চন্দ্রপুর থানায়। তিন দিন কেটে গেলেও পুলিশ কোন পদক্ষেপ নেয়নি বলে অভিযোগ বেগম বেওয়ার। দেখা মেলেনি কারোর। তারা জমি জায়গা না পেলে এই খোলা আকাশের নীচেই পড়ে থেকে মৃত্যু বরণ করবেন বলে সাফ জানিয়েছেন দম্পতি। নাসিরুদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি। যদিও এই নাসিরুদ্দিনের এমন ন্যক্কারজনক কান্ডে ক্ষুব্ধ ব্লক তৃণমুল নেতৃত্ব।

error: