৬ ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ স্মরণে কালা দিবস পালন যুব ফেডারেশনের



সারা বাংলা সংখ্যালঘু কাউন্সিল ও সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের উদ্যোগে ৬ ডিসেম্বর ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ শাহাদাত দিবস উপলক্ষে উত্তর ২৪ পরগনার শাসনের আমিনপুর বাজারে কালা দিবস ও বাবরি স্মরণ সভা পালন করা হয়। সভায় সংখ্যালঘু কাউন্সিল ও সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহঃ কামরুজ্জামান বলেন আফসোস ঐতিহ্যবাহী বাবরি মসজিদ ধ্বংসের প্রমান থাকার পরেও দেশের বিচার ব্যবস্থা যেভাবে বাবরির স্থানে রামমন্দির নির্মানের অনুমতি দিয়েছে। যে মসজিদ ধ্বংসের ছবি, ভিডিও, সারা পৃথিবীর প্রিন্ট মিডিয়া থেকে ইলেকট্রনিক মিডিয়া সম্প্রচার করেছে যার জন্য বিশ্ব দরবারে ভারতের মাথা হেঁট হয়েছিল। আরও আফসোস ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট বিভিন্ন বিষয়ে আপিল গ্রহণ করলেও বাবরি মসজিদ রায় নিয়ে অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের আপিল তৎক্ষণাৎ খারিজ করে দিয়েছে। যা দেশের মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে বড়ো কষ্টের ও বেদনার। আমরা চাই দেশের বিচার ব্যবস্থা শাসকের প্রভাবমুক্ত হোক, তাহলেই পরবর্তীতে দেশের মজলুম অত্যাচারিত মানুষ ইনসাফ পাবে।

সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সভাপতি মাওঃ আনোয়ার হোসেন কাসেমী বলেন অযোধ্যার মাটি থেকে গেরুয়া সন্ত্রাসী ও রাষ্ট্রীয় শক্তির সহোযোগিতায় বাবরি মসজিদ ধ্বংস করে ফেললেও প্রতিটি ভারতীয় মুসলিমের হৃদয়ে তা রয়ে গেছে। ১৯৯২ এর ত্রিশ বছর পরও তার আমরা ভুলিনি, এবং এই বাবরি মসজিদের কথা আমরা আমাদের পরবর্তী প্রজন্মকেও জানিয়ে যাবো বছরের পর বছর।

এদিন এই সভায় বক্তব্য রাখেন সংখ্যালঘু কাউন্সিলের সহ সভাপতি ডাঃ মনিরুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ বাবর হোসেন, সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সহ সম্পাদক হাফেজ নাজমুল আরেফিন ও শিক্ষক আলি আকবর, সংগঠনের উঃ ২৪ পরগনা জেলা সম্পাদক তৈয়বুর রহমান, সমাজকর্মী মাওঃ রুহুল আমিন সহ বিশিষ্টজনেরা। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সংগঠনের সহ সভাপতি মাহমুদুল হাসান।

error: