এক সময় বিক্রি করতেন লেবুজল-আইসক্রিম, সেই এলাকারই পুলিশ অফিসার হয়ে গেলেন কেরলের যুবতী



বি.বি নিউজ ডিজিটাল ডেস্ক: ১৩ বছর আগে কেরলের ভারকালায় পর্যটকদের জন্য লেবুজল, আইসক্রিম বিক্রি করতেন তিনি। এখন সেই এলাকারই পুলিশ আধিকারিক হয়ে গিয়েছেন বছরের ৩১-এর অ্যানি সিবা। অ্যানিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করেছে কেরল পুলিশ। সেই টুইট থেকেই অ্যানির সংগ্রামের ব্যাপারটি প্রকাশ্যে আসে।

বর্তমানে ভারকালা থানার সাব ইনস্পেক্টর অ্যানি। কলেজের প্রথম বর্ষে পড়ার সময় পরিবারের অমতে তাঁর ছেলে বন্ধুর সঙ্গে থাকতে শুরু করেন অ্যানি। সন্তানসম্ভবাও হয়ে পড়েন। ঠিক সেই সময়েই ওই ছেলে বন্ধুটি তাঁকে ছেড়ে চলে যান। এর পরেই অথৈ জলে পড়েন অ্যানি। বাড়িতেও ফেরার উপায় ছিল না। তার পরই শুরু হয় জীবনসংগ্রাম।

অ্যানি জানান, সন্তান জন্মানোর পর বাড়িতে ফিরেছিলেন। কিন্তু তাঁকে ঘরে তুলতে অস্বীকার করা হয়। ভাড়াবাড়িতে ছেলে শিবসূর্যকে নিয়ে দিন কাটাতে শুরু করেন। পেট চালানোর জন্য মশলা, সাবানের ব্যবসা শুরু করেন। কাজ করেন বিমা সংস্থার এজেন্ট হিসেবেও। এমনকি ভারকালা এলাকায় লেবু জল, আইসক্রিমও বিক্রি করতে হয়েছে তাঁকে। এ ভাবেই একটু একটু করে টাকা জমিয়ে সমাজবিদ্যায় স্নাতক করেন।

২০১৪-তে পুলিশে চাকরির পরীক্ষার জন্য একটি কোচিং সেন্টারে ভর্তি হন অ্যানি। এক দিকে ছিল ছেলেকে দেখাশোনা করা, অন্য দিকে চাকরির জন্য পড়াশোনা। সবটাই সামলাচ্ছিলেন অ্যানি। ২০১৬-তে পুলিশের পরীক্ষায় পাশ করেন। চাকরিও পান।

এরপর ২০১৯-এ সাব ইন্সপেক্টর পদের পরীক্ষায় বসেন তিনি। তাতেও পাশ করেন। এ বছরের ২৫ জুন সেই ভারকালা এলাকারই সাব-ইনস্পেক্টর হয়ে আসেন অ্যানি। ১৩ বছর আগে যে এলাকায় অ্যানি লেবু জল বিক্রি করতেন, আজ সেই এলাকা রক্ষার দায়িত্ব তাঁর হাতে।

মহেন্দ্র সিংহ ধোনির উত্থানের কথা এখন প্রায় সবারই জানা। একটা সময় খড়গপুর স্টেশনে টিটি ছিলেন ধোনি। সেখান থেকে ভারতের সফলতম অধিনায়ক হয়ে যান ধোনি। অ্যানির উত্থানটাও কতকটা সেই রকমই। ধোনি হোক বা অ্যানি, সাফল্যের মুখ দেখার পেছনে একমাত্র কারণ কিন্তু কঠোর পরিশ্রম আর হাল না ছেড়ে দেওয়া মনোভাব।

error: