ভোট-পরবর্তী হিংসাত্মক ঘটনা, পশ্চিমবঙ্গের থেকে রিপোর্ট তলব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের



বি.বি নিউজ ওয়েবডেস্কঃ ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশন মিছিলকারীদের গ্রেফতার করতে এফআইআর দায়ের করার নির্দেশ দিয়েছে। তার সত্ত্বেও তাণ্ডবলীলায় লাগাম পরানো যাচ্ছে না বলেই অভিযোগ।

ভোটের ফল ঘোষণার পর থেকে ইতিমধ্যেই রাজ্যজুড়ে ছ’ জন বিজেপি কর্মী খুন হয়েছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এবার কোন পরিস্থিতিতে বিরোধী দলের কর্মীদের ওপর আক্রমণ চালানো হল তার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট তলব করেছে।

উল্লেখ্য, এর আগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছিল, এরাজ্যের ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের পর রাজনৈতিক হিংসার ৬৯৩ ও ১১টি খুনের মামালা দায়ের হয়েছিল। এমনকী, ভোটের পরেও হিংসা অব্যাহত থাকে। ভোটের পর ওই বছর ১ জুন থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সব মিলিয়ে মোট ৮৫২ টি মামলার রিপোর্ট কমিশনকে পাঠিয়েছিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছিল, এই সময়ের মধ্যে ৬১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

২০১৯ সালে প্রকাশিত ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো (‌এনসিআরবি)‌’‌র তথ্য অনুয়ায়ী, রাজনৈতিক খুনের মামলার সারা ভারতের মধ্যে এরাজ্যই সব চেয়ে উপরে রয়েছে।

সূত্রের খবর, এরাজ্যে রাজনৈতিক হিংসার ঘটনা নিয়ে মূল ইনপুট হিসাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের একটি রিপোর্ট সম্ভবত বিধানসভা নির্বাচনের আগে আট পর্বের ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় ব্যবহার করেছিল নির্বাচন কমিশন।

error: