‘রুদ্রনীল আমি মিচকে শয়তান হতে পারি, কিন্তু তোর মতো ধান্দাবাজ নই’, খোঁচা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের



বি.বি নিউজ বিনোদন ডেস্কঃ নেটজনতার একাংশের কাছে তিনি ‘গিরিগিটি’। একদা বাম মনোভাবাপন্ন অভিনেতার ভায়া তৃণমূল (TMC) হয়ে গেরুয়া শিবিরে যোগদানের জন্যই এহেন কটাক্ষের শিকার রুদ্রনীল ঘোষ (Rudranil Ghosh)। তাঁর রাজনৈতিক কেরিয়ার কম সমালোচিতও নয়। একুশের বিধানসভা ভোটের আগে দলবদলে পদ্ম-পুকুরে গিয়েও তরী বাঁচাতে পারেননি! পরিবর্তে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খাসতালুক ভবানীপুরে একেবারে চূড়ান্তভাবে পরাস্ত হয়েছেন তিনি।

আর সেই প্রেক্ষিতেই এবার অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের (Bhaswar Chatterjee) মন্তব্য, “রুদ্রনীলের হারের সঙ্গেই যেন তাঁর ১৪ বছরের বনবাস কাটল!” শুধু এখানেই থামেননি ভাস্বর। পাশাপাশি পদ্মপ্রার্থী রুদ্রনীলকে কটাক্ষ করে তাঁর বিস্ফোরক মন্তব্য, “রুদ্র আমি মিচকে শয়তান হতে পারি, কিন্তু তোর মতো ধান্দাবাজ নই।” উপরন্তু সহকর্মীর বিরুদ্ধে প্রকাশ্যেই এমন মন্তব্য করে বসেছেন টেলি-অভিনেতা।

হঠাৎ কেন রুদ্রনীলকে ধান্দাবাজ আখ্যা ভাস্বরের? ২০০৭ সালে এক সাক্ষাৎকারে নাকি রুদ্রনীল ঘোষ ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়েক মিচকে শয়তান বলেছিলেন! দেবাংশু সেনগুপ্তের পরিচালনায় একটি টেলিফিল্ম একসঙ্গে কাজ করার পরই নাকি রুদ্রনীল কুমন্তব্য করেছিলেন তাঁকে নিয়ে। শুধু তাই নয়, সংবামাধ্যমে ঢেঁড়া পিটিয়ে জানিয়েছিলেন বলেও অভিযোগ।

১৪ বছর ধরে সেই প্রেক্ষিতে কিচ্ছুটি বলেননি ভাস্বর। কিন্তু দলবদলেও যখন নির্বাচনী জিতের আস্বাদ পেতে ব্যর্থ রুদ্রনীল, ঠিক এমন সময়েই নিজের মোক্ষম বাক্যবাণ প্রয়োগ করলেন ভাস্বর। তাঁর কথায়, “কথাগুলো প্রকাশ্যে বলে বেশ হালকা লাগছে। আমি কোনওদিনই চট করে কারও বিরুদ্ধে মন্তব্য করি না। কারণ সারা জীবনেও একটা মানুষকে ভাল করে চিনে ওঠা যায় না। কিন্তু কেউ অপমান করলে তাঁকেও ছেড়ে কথা বলি না।” সেই প্রেক্ষিতেই এবার একুশের ভোটের পর রুদ্রের হারে মৌনব্রত ভাঙলেন ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়।

পদ্মপ্রার্থী রুদ্রনীলের উদ্দেশে ভাস্বরের সপাট মন্তব্য, “২০০৭ সালে তুই সংবাদমাধ্যেমের কাছে দেএয়া একটা সাক্ষাৎকারে আমাকে মিচকে শয়তান বলেছিলি। হতে পারে তোর কাছে তাই! কিন্তু আমি এতদিন একটা কথাও তোর বিরুদ্ধে মিডিয়াকে বলিনি। আজ বলি, আমি আর যাই হই, তোর মতো ধান্দাবাজ নই। তুই তো বড় মাপের অভিনেতা কিন্তু জানিস তো, অভিনেতা হোস বা নেতা, আগে ভাল মানুষ হতে হয়। নাহলে লোকের মনোরঞ্জন বা মানুষের জন্য কাজ করবি কী করে?”

error: